১১ বছর বয়সে ধ’র্ষককে বিয়ের পর ৯ সন্তানের জননী

১১ বছর বয়সে ধ’র্ষককে বিয়ের পর ৯ সন্তানের জননী

নিজের ধ’র্ষককে ১১ বছর বয়সে বিয়ে করতে বাধ্য হয়েছিলেন ফ্লোরিডার বাসিন্দা এক মা’র্কিন নারী।ছোটবেলায় পারিবারিক গির্জার ধ’র্মগুরুদের হাতে চারবার ধ’র্ষণের শিকার হয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন শেরি জনসন নামের এই নারী।তিনি জানান, এর ফলে ১০ বছর বয়সে গর্ভবতী হয়ে পড়েন। ত’দন্তকারীরা তার অ’ভিযোগ খতিয়ে দেখতে গেলে তিনি তাদের বলেন, ধ’র্ষককে বিয়ে করতে বাধ্য করছিল তার পরিবার। এর মাধ্যমে শেরির পরিবার এক ধ’র্ষণকারীকে বাঁচিয়ে দিয়েছিল।

মা’র্কিন গণমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসকে তিনি আরো বলেন, ‘আমা’র মা আমাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, আমি বিয়ে করতে চাই কি না। আমি বললাম, বিয়ে কী’- আমি জানি না। কী’ভাবে একজন স্ত্রী’র দায়িত্ব পালন করবো? তিনি বললেন- ওহ, আমা’র মনে হয়, তোমাকে শিগগিরই আম’রা বিয়ে দিতে যাচ্ছি।’যুক্তরাষ্ট্রের ২৭টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে ফ্লোরিডা অন্যতম, যেখানে মা-বাবার অনুমতি নিয়ে শি’শুদের বিয়ে বৈধ।

শেরি জানান, অল্প বয়সে বিয়ের কারণে তিনি নিয়মিত স্কুলে যেতে পারেননি। এর পরিবর্তে তাকে তার বাচ্চার দেখাশোনা করতে হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট নয় সন্তানের জন্ম দিয়েছেন এই নারী। আর্থিক বিষয় নিয়ে বিভিন্ন সময়ে স্বামীর সঙ্গে ঝামেলা হয়েছে তার।

শেরির ভাষায়, ‘এটা ছিল ভয়ংকর জীবন।’ শেষ পর্যন্ত তাদের বিয়ে ভেঙে গিয়েছিল।পরে নিজের জীবন নিয়ে ‘ফরগিভিং অ্যান্ড আনফরগিভেবল’ নামে একটি বই লিখেছিলেন শেরি জনসন। ওই বই পড়ে ফ্লোরিডায় বাল্যবিবাহ বেআইনি করার দাবিতে সংসদে একটি বিল আনেন রাজ্য প্রতিনিধি সিনথিয়া স্ট্যাফোর্ড। ১৬ বছরের কম বয়সী কোনো মেয়েকে বিয়ে না দেয়ার দাবি ছিল তার।

তবে শেষ পর্যন্ত তার বিল আর আইনে পরিণত হয়নি। চলতি বছর নিউ হ্যাম্পশায়ারে একই ধরনের একটি বিলে অনুমোদন দেয়নি সংসদ।২০১১ সালের এক জরিপ মতে, যুক্তরাষ্ট্রের ৯৪ লাখ নারীর বিয়ে হয়েছিল ১৬ বছরের কম বয়সে।

Please Share This Post in Your Social Media

© All rights reserved © 2019 bdsangbad71